০৬:২৫ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৬ জুলাই ২০২৪, ১ শ্রাবণ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ঐতিহ্যের ডাকবাক্সের এখন আর কদর নেই

  • সবুজ বাংলা
  • আপডেট সময় : ০৪:২৮:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২৩
  • 39

নরসিংদী প্রতিনিধি

ডাক ব্যবস্থার অন্যতম অনুষঙ্গ ডাক বাক্সের এখন আর গুরুত্ব নেই। দেশের সব দর্শনীয় ও জনাকীর্ন স্থানে লাল টকটকে ডাক বাক্সের শোভাবর্ধন এখন চোখে পড়ে কেবলমাত্র কালেভদ্রে।যে ক’টি ডাকবাক্স আছে তাদেরও এখন অন্তিমদশা। অনাদর অবহেলা ও চরম ভগ্নদশা এখন তাদের। অথচ কতো কদর ও গুরুত্ব ছিলো একদিন এ ডাক বাক্সের!

দেশের পত্র যোগাযোগ ব্যবস্থার সাথে জড়িত একটি অতীব পরিচিত শব্দ ডাকবাক্স। নেট দুনিয়ার প্রবর্তন ও কালের বিবর্তনের মুখে এ শব্দটি উচ্চারিত হয়ে থাকে এখন নিতান্তই মাঝে মধ্যে। গ্রামের হাটে বাজারের জনবহুল স্থানসমূহে টকটকে লাল ডাকবাক্স চোখে পড়ে এখন কালে ভদ্রে। মনোহরদীর বিভিন্ন হাটে বাজারে অনেক খোঁজখবর করেও ডাক্সবাক্সের সন্ধান মেলেনি। শেষে একটি ডাকবাক্স মিললো চালাকচর বাজারের ইডি ডাকঘরে।তা’ও রীতিমতো অযত্ন অবহেলার জ্বাজ্জল্যমান স্বাক্ষ্য হয়ে নিতান্তই ভগ্নস্বাস্থ্য নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলো ভাঙ্গা একটি টিনের বেড়ায়। একেবারেই লোকচক্ষুর অন্তরালে ঘরের পেছন অংশে পড়ে ছিলো সেটি। ঐতিহ্যের সেই ডাকবাক্সটি একজন বয়োঃবৃদ্ধ লোকের মতো দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ধুকছিলো কেবল।যেনো কাল ক্ষেপন চলছে তার অন্তিম অপেক্ষায়।সেখানকার পোষ্ট মাষ্টার আবুল কালাম ৩০ বছর ধরে আছেন তিনি এখানে এ পদে। তিনি জানান, ডাকবাক্স দিয়ে কি হবে আর, ডাকঘরেরই তো এখন গুরুত্ব নেই আর নেট দুনিয়ায়। সাধারন চিঠি কমতে কমতে এখন কেবলমাত্র চাকুরীর ইন্টারভিউ,
নিয়োগ,নানা রকম নোটিশে এসে ঠেকেছে। পার্সেল এবং রেজিষ্ট্রি চিঠিতেই সীমাবদ্ধ এখন এখানকার ডাক ব্যবস্থা। মানি অর্ডার বুকপোষ্ট হয় এখন একেবারেই কালেভদ্রে।৷ ফলে ডাকবাক্সের প্রয়োজন নেই বললেই চলে। তার কথার সত্যতা মেলে মনোহরদীর আরো ক’টি ইডি ডাকঘর ঘুরে।কোথাও একটি ডাকবাক্স চোখে পড়েনি সে অনুসন্ধানে। খোদ মনোহরদী উপজেলা পোষ্ট অফিসের সামনের রাস্তায় দন্ডায়মান দেখা যায় একটি ডাকবাক্সের। খোল নলচে সব ঠিক আছে তার।তবে তালার অস্তিত্ব নেই তাতে।অব্যবহারে অনাদর অবহেলার ছাপ তাতে সুস্পষ্ট। মনোহরদী উপজেলার ভারপ্রাপ্ত পোষ্ট মাষ্টার নাদিয়া নাজনীন জানালেন,মনোহরদী উপজেলা পোষ্ট অফিসের অধীনে ১০টি ইডি পোষ্ট অফিস রয়েছে।এর প্রত্যেকটিতেই একটি করে ডাকবাক্স থাকার কথা।চিঠির জন্য এখন ডাকবাক্সের খুব একটা কার্যকারিতা না থাকায় এর গুরুত্বও কমে গেছে।

ইবির বঙ্গবন্ধু হলের পকেট গেট বন্ধ করে দিল প্রশাসন 

ঐতিহ্যের ডাকবাক্সের এখন আর কদর নেই

আপডেট সময় : ০৪:২৮:২২ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১ সেপ্টেম্বর ২০২৩

নরসিংদী প্রতিনিধি

ডাক ব্যবস্থার অন্যতম অনুষঙ্গ ডাক বাক্সের এখন আর গুরুত্ব নেই। দেশের সব দর্শনীয় ও জনাকীর্ন স্থানে লাল টকটকে ডাক বাক্সের শোভাবর্ধন এখন চোখে পড়ে কেবলমাত্র কালেভদ্রে।যে ক’টি ডাকবাক্স আছে তাদেরও এখন অন্তিমদশা। অনাদর অবহেলা ও চরম ভগ্নদশা এখন তাদের। অথচ কতো কদর ও গুরুত্ব ছিলো একদিন এ ডাক বাক্সের!

দেশের পত্র যোগাযোগ ব্যবস্থার সাথে জড়িত একটি অতীব পরিচিত শব্দ ডাকবাক্স। নেট দুনিয়ার প্রবর্তন ও কালের বিবর্তনের মুখে এ শব্দটি উচ্চারিত হয়ে থাকে এখন নিতান্তই মাঝে মধ্যে। গ্রামের হাটে বাজারের জনবহুল স্থানসমূহে টকটকে লাল ডাকবাক্স চোখে পড়ে এখন কালে ভদ্রে। মনোহরদীর বিভিন্ন হাটে বাজারে অনেক খোঁজখবর করেও ডাক্সবাক্সের সন্ধান মেলেনি। শেষে একটি ডাকবাক্স মিললো চালাকচর বাজারের ইডি ডাকঘরে।তা’ও রীতিমতো অযত্ন অবহেলার জ্বাজ্জল্যমান স্বাক্ষ্য হয়ে নিতান্তই ভগ্নস্বাস্থ্য নিয়ে দাঁড়িয়ে ছিলো ভাঙ্গা একটি টিনের বেড়ায়। একেবারেই লোকচক্ষুর অন্তরালে ঘরের পেছন অংশে পড়ে ছিলো সেটি। ঐতিহ্যের সেই ডাকবাক্সটি একজন বয়োঃবৃদ্ধ লোকের মতো দাঁড়িয়ে দাঁড়িয়ে ধুকছিলো কেবল।যেনো কাল ক্ষেপন চলছে তার অন্তিম অপেক্ষায়।সেখানকার পোষ্ট মাষ্টার আবুল কালাম ৩০ বছর ধরে আছেন তিনি এখানে এ পদে। তিনি জানান, ডাকবাক্স দিয়ে কি হবে আর, ডাকঘরেরই তো এখন গুরুত্ব নেই আর নেট দুনিয়ায়। সাধারন চিঠি কমতে কমতে এখন কেবলমাত্র চাকুরীর ইন্টারভিউ,
নিয়োগ,নানা রকম নোটিশে এসে ঠেকেছে। পার্সেল এবং রেজিষ্ট্রি চিঠিতেই সীমাবদ্ধ এখন এখানকার ডাক ব্যবস্থা। মানি অর্ডার বুকপোষ্ট হয় এখন একেবারেই কালেভদ্রে।৷ ফলে ডাকবাক্সের প্রয়োজন নেই বললেই চলে। তার কথার সত্যতা মেলে মনোহরদীর আরো ক’টি ইডি ডাকঘর ঘুরে।কোথাও একটি ডাকবাক্স চোখে পড়েনি সে অনুসন্ধানে। খোদ মনোহরদী উপজেলা পোষ্ট অফিসের সামনের রাস্তায় দন্ডায়মান দেখা যায় একটি ডাকবাক্সের। খোল নলচে সব ঠিক আছে তার।তবে তালার অস্তিত্ব নেই তাতে।অব্যবহারে অনাদর অবহেলার ছাপ তাতে সুস্পষ্ট। মনোহরদী উপজেলার ভারপ্রাপ্ত পোষ্ট মাষ্টার নাদিয়া নাজনীন জানালেন,মনোহরদী উপজেলা পোষ্ট অফিসের অধীনে ১০টি ইডি পোষ্ট অফিস রয়েছে।এর প্রত্যেকটিতেই একটি করে ডাকবাক্স থাকার কথা।চিঠির জন্য এখন ডাকবাক্সের খুব একটা কার্যকারিতা না থাকায় এর গুরুত্বও কমে গেছে।