০১:৩৭ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ১৩ জুন ২০২৪, ২৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কালিগঙ্গা নদীতে অবৈধ ডেজার বাণিজ্য 

Oplus_0

মানিকগঞ্জে ইজারার নাম করে কালিগঙ্গা নদী থেকে ড্রেজার বসিয়ে অবৈধভাবে বালু  উত্তোলন করছে একটি প্রভাবশালী মহল ।
 মানিকগঞ্জ ঘিওর উপজেলা বানিয়াজুরি ইউনিয়নে অবস্থিত তরা ব্রিজের নিচে কালিগঙ্গা নদী থেকে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে বালু  উত্তোলন করে আসছেন ড্রেজার ব্যবসায়ী  ওহাব ও স্থানীয় ইউপি সদস্য রাজা মেম্বার। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নদী থেকে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। আর এতে হুমকির মুখে রয়েছে তিন ফলসি জমি ও বসতবাড়ি। যে কোন সময় নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
স্থানীয় এক ব্যক্তি তলেব অভিযোগ করে বলেন, যেভাবে কালিগঙ্গা নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু মাটি উত্তোলন করা হচ্ছে এতে আমাদের কৃষি জমি ও বসতবাড়ী বর্ষা মৌসুমে হুমকির মুখে পড়বে, তারা ক্ষমতাশালী মানুষ তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলতে সাহস পায় না। এছাড়া নদীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু বহন করার পাইপ আমাদের ফলসি জমির ওপর দিয়ে জোড়করে নেওয়া  হয়েছে, এতে অনেক ফসল নষ্ট হচ্ছে।এ থেকে আমরা পরিত্রাণ চাই।
এ বিষয়ে ড্রেজার ব্যবসায়ী ওহাব ও রাজা মেম্বারের নিকটে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে তারা জানান, চরে অফিস আছে সেই অফিসে আমরা টাকা দিয়ে দিয়ে ড্রেজার চালাচ্ছি। এতে প্রশাসনের অনুমতি রয়েছে।
 এ বিষয়ে জানতে ঘিওর উপজেলা নিবার্হী অফিসার (ইউএনও) আমিনুল ইসলাম ফোনে সাংবাদিকদেরকে বলেন, তরা কালিগঙ্গা নদীর আশেপাশে ড্রেজারের ইজারা অনেক আগেই শেষ হয়ে গেছে, এখন যারা চালাচ্ছে তা অবৈধ। সঠিক তথ্য নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
জনপ্রিয় সংবাদ

টিউশনের নামে প্রতারণার ফাঁদ

কালিগঙ্গা নদীতে অবৈধ ডেজার বাণিজ্য 

আপডেট সময় : ১২:৫২:৪৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১১ জুন ২০২৪
মানিকগঞ্জে ইজারার নাম করে কালিগঙ্গা নদী থেকে ড্রেজার বসিয়ে অবৈধভাবে বালু  উত্তোলন করছে একটি প্রভাবশালী মহল ।
 মানিকগঞ্জ ঘিওর উপজেলা বানিয়াজুরি ইউনিয়নে অবস্থিত তরা ব্রিজের নিচে কালিগঙ্গা নদী থেকে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে অবৈধভাবে প্রশাসনের চোখ ফাঁকি দিয়ে বালু  উত্তোলন করে আসছেন ড্রেজার ব্যবসায়ী  ওহাব ও স্থানীয় ইউপি সদস্য রাজা মেম্বার। সরজমিনে গিয়ে দেখা যায়, নদী থেকে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন বসিয়ে বালু উত্তোলন করা হচ্ছে। আর এতে হুমকির মুখে রয়েছে তিন ফলসি জমি ও বসতবাড়ি। যে কোন সময় নদী গর্ভে বিলীন হয়ে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।
স্থানীয় এক ব্যক্তি তলেব অভিযোগ করে বলেন, যেভাবে কালিগঙ্গা নদী থেকে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু মাটি উত্তোলন করা হচ্ছে এতে আমাদের কৃষি জমি ও বসতবাড়ী বর্ষা মৌসুমে হুমকির মুখে পড়বে, তারা ক্ষমতাশালী মানুষ তাদের বিরুদ্ধে কেউ কথা বলতে সাহস পায় না। এছাড়া নদীতে ড্রেজার মেশিন দিয়ে বালু বহন করার পাইপ আমাদের ফলসি জমির ওপর দিয়ে জোড়করে নেওয়া  হয়েছে, এতে অনেক ফসল নষ্ট হচ্ছে।এ থেকে আমরা পরিত্রাণ চাই।
এ বিষয়ে ড্রেজার ব্যবসায়ী ওহাব ও রাজা মেম্বারের নিকটে মোবাইল ফোনে জানতে চাইলে তারা জানান, চরে অফিস আছে সেই অফিসে আমরা টাকা দিয়ে দিয়ে ড্রেজার চালাচ্ছি। এতে প্রশাসনের অনুমতি রয়েছে।
 এ বিষয়ে জানতে ঘিওর উপজেলা নিবার্হী অফিসার (ইউএনও) আমিনুল ইসলাম ফোনে সাংবাদিকদেরকে বলেন, তরা কালিগঙ্গা নদীর আশেপাশে ড্রেজারের ইজারা অনেক আগেই শেষ হয়ে গেছে, এখন যারা চালাচ্ছে তা অবৈধ। সঠিক তথ্য নিয়ে অভিযান পরিচালনা করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।