০৯:০৪ অপরাহ্ন, সোমবার, ১৫ জুলাই ২০২৪, ৩১ আষাঢ় ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আলগী তন্তুবায় সমবায় সমিতির ব্যাবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত 

নরসিংদীতে আলগী তন্তুবায় সমবায় সমিতি লিমিটেডের ব্যাবস্থাপনা কমিটির নির্বাচনে মোঃ মিজানুর রহমান সভাপতি, মোয়াজ্জেম হোসেন সহ-সভাপতি ও হুমায়ূন কবির সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২০ই জুন) বিকাল ৫ টায় ভোট গণনা শেষে উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ ওমর ফারুক বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন। এর আগে সকাল নয়টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত উৎসবমুখর পরিবেশে কোন ধরনের সহিংসতা ও অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া বিরতিহীনভাবে সমিতির কার্যালয়ে ৫৫০ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।
নির্বাচনে ৫৯৮ জন ভোটারের বিপরীতে ৬ টি জোনে ৯ টি পদের জন্য ২০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ভোট গণনা শেষে সভাপতি পদে মোঃ মিজানুর রহমান চেয়ার প্রতীক নিয়ে ৩৮০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ জহিরুল ইসলাম কাপ -পিরিচ প্রতীকে ১৪৮ ভোট পেয়েছেন। সহ-সভাপতি পদে মোয়াজ্জেম হোসেন হরিণ প্রতীক নিয়ে ৩০৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অলি উল্যা আনারস প্রতীক নিয়ে ২৩০ ভোট পান
সম্পাদক পদে হুমায়ূন কবির মাছ প্রতীকে ৩৬০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ জাকির হোসেন গোলাপ ফুল প্রতীকে ১৭৬ ভোট পেয়েছেন। সদস্য পদে ০১ নং জোনে আশ্রাব আলী ফুটবল প্রতীকে ৮৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ কামালুদ্দিন বাইসাইকেল প্রতীকে ১৪ ভোট পেয়েছেন। ২ নং জোনে আলী হোসেন বাইসাইকেল প্রতীকে ৪৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ওমর আলী চৌধুরী তালাচাবি প্রতীকে ৩৮ ভোট পেয়েছেন।
৩ নং জোনে মোঃ জাকির হোসেন বাইসাইকেল প্রতীকে ৪৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিরণ মিয়া তালাচাবি প্রতীকে ৪২ ভোট পেয়েছেন। ৪ নং জোনে কাউছার ফুটবল প্রতীকে ৪৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন ‌। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুস সামাদ মিয়া বাইসাইকেল প্রতীকে ২৪ ভোট ও নুরুল আমিন লালপুরী মঈ প্রতীকে ২৬ ভোট পেয়েছেন।
৫ নং জোনে মোঃ মোক্তার হোসেন মঈ প্রতীকে ৫৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ মলি হোসেন তালাচাবি প্রতীকে ৩৬ ভোট পেয়েছেন। ৬ নং জোনে মোঃ আশরাফুজ্জামান তালাচাবি প্রতীকে ৪২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ সোহেল ফুটবল প্রতীকে ৩১ ভোট পেয়েছেন। সকলের সহযোগিতা ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় একটি অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন উপহার দিতে পেরে ভোটার, প্রিজাইডিং অফিসার, পুলিশ,  র‍্যাব কর্মকর্তা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মোহাম্মদ ওমর ফারুক।
এসময় বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় তাঁতী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শওকত আলী, নূরালাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সানাউল্লাহ মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাকারিয়া, নূরালাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খাদেমুল ইসলাম ফয়সাল, সমবায়ী নুরুল ইসলাম, মোঃ ওবায়দুর রহমান, নূরালাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল বিন ইসলাম, মহিষাশুড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল মাহমুদ সহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

আলগী তন্তুবায় সমবায় সমিতির ব্যাবস্থাপনা কমিটির নির্বাচন অনুষ্ঠিত 

আপডেট সময় : ০৭:৪৫:২৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২০ জুন ২০২৪
নরসিংদীতে আলগী তন্তুবায় সমবায় সমিতি লিমিটেডের ব্যাবস্থাপনা কমিটির নির্বাচনে মোঃ মিজানুর রহমান সভাপতি, মোয়াজ্জেম হোসেন সহ-সভাপতি ও হুমায়ূন কবির সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার (২০ই জুন) বিকাল ৫ টায় ভোট গণনা শেষে উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা ও নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ ওমর ফারুক বিজয়ীদের নাম ঘোষণা করেন। এর আগে সকাল নয়টা থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত উৎসবমুখর পরিবেশে কোন ধরনের সহিংসতা ও অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া বিরতিহীনভাবে সমিতির কার্যালয়ে ৫৫০ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।
নির্বাচনে ৫৯৮ জন ভোটারের বিপরীতে ৬ টি জোনে ৯ টি পদের জন্য ২০ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। ভোট গণনা শেষে সভাপতি পদে মোঃ মিজানুর রহমান চেয়ার প্রতীক নিয়ে ৩৮০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ জহিরুল ইসলাম কাপ -পিরিচ প্রতীকে ১৪৮ ভোট পেয়েছেন। সহ-সভাপতি পদে মোয়াজ্জেম হোসেন হরিণ প্রতীক নিয়ে ৩০৪ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী অলি উল্যা আনারস প্রতীক নিয়ে ২৩০ ভোট পান
সম্পাদক পদে হুমায়ূন কবির মাছ প্রতীকে ৩৬০ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন।তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ জাকির হোসেন গোলাপ ফুল প্রতীকে ১৭৬ ভোট পেয়েছেন। সদস্য পদে ০১ নং জোনে আশ্রাব আলী ফুটবল প্রতীকে ৮৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ কামালুদ্দিন বাইসাইকেল প্রতীকে ১৪ ভোট পেয়েছেন। ২ নং জোনে আলী হোসেন বাইসাইকেল প্রতীকে ৪৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ওমর আলী চৌধুরী তালাচাবি প্রতীকে ৩৮ ভোট পেয়েছেন।
৩ নং জোনে মোঃ জাকির হোসেন বাইসাইকেল প্রতীকে ৪৫ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী হিরণ মিয়া তালাচাবি প্রতীকে ৪২ ভোট পেয়েছেন। ৪ নং জোনে কাউছার ফুটবল প্রতীকে ৪৯ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন ‌। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আব্দুস সামাদ মিয়া বাইসাইকেল প্রতীকে ২৪ ভোট ও নুরুল আমিন লালপুরী মঈ প্রতীকে ২৬ ভোট পেয়েছেন।
৫ নং জোনে মোঃ মোক্তার হোসেন মঈ প্রতীকে ৫৭ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ মলি হোসেন তালাচাবি প্রতীকে ৩৬ ভোট পেয়েছেন। ৬ নং জোনে মোঃ আশরাফুজ্জামান তালাচাবি প্রতীকে ৪২ ভোট পেয়ে বিজয়ী হন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মোঃ সোহেল ফুটবল প্রতীকে ৩১ ভোট পেয়েছেন। সকলের সহযোগিতা ও ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় একটি অবাধ, সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন উপহার দিতে পেরে ভোটার, প্রিজাইডিং অফিসার, পুলিশ,  র‍্যাব কর্মকর্তা ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধি সহ সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সভাপতি ও উপজেলা সমবায় কর্মকর্তা মোহাম্মদ ওমর ফারুক।
এসময় বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় তাঁতী লীগের সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার শওকত আলী, নূরালাপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি সানাউল্লাহ মোল্লা, সাধারণ সম্পাদক মোঃ জাকারিয়া, নূরালাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান খাদেমুল ইসলাম ফয়সাল, সমবায়ী নুরুল ইসলাম, মোঃ ওবায়দুর রহমান, নূরালাপুর ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক ফয়সাল বিন ইসলাম, মহিষাশুড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক রাসেল মাহমুদ সহ বিভিন্ন ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।