১০:৫২ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

সরকারি অনুমোদন পেলো বশেমুরবিপ্রবি বিজ্ঞান ক্লাব 

দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর বাংলাদেশ সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের অনুমোদন পেলো গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞান ক্লাব৷
বিজ্ঞান ক্লাবটি যাত্রা শুরু করে ২০১৯ সালে। দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে বর্তমানে বশেমুরবিপ্রবি ক্যাম্পাসের একটা নির্ভরযোগ্য বিজ্ঞান ভিত্তিক সংগঠনে পরিণত হয়েছে বিজ্ঞান ক্লাব।  বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাসহ পুরো গোপালগঞ্জ জেলায় বিজ্ঞান প্রচার ও প্রসারে কাজ করে যাচ্ছে ক্লাবটি। একটি বিজ্ঞান ভিত্তিক ক্লাব সরকারি ভাবে অনুমোদনের জন্য যত শর্ত রয়েছে গতবছরে সেটি পূরণ করেছে সংগঠনটি।
সব শর্তপূরণ করার শর্তে আবেদন যাচাই বাছাই শেষে মৌখিক ভাবে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কতৃপক্ষ আগেই জানায় ক্লাব কতৃপক্ষ কে এবং তারই সাথে জাদুঘর ভ্রমনের নিমন্ত্রণ জানায়৷ অফিশিয়ালি আজ ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ বিজ্ঞান ক্লাব সভাপতি সাদমান কাওসার এবং সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম সহ সহসভাপতি সাদিয়া ইসলাম বাবলি, সুমাইয়া খাতুন ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাকিবুল ইসলামের একটি টিম বশেমুরবিপ্রবি বিজ্ঞান ক্লাবের পক্ষ থেকে অনুমোদন পত্রটি গ্রহন করেন। জাদুঘর কতৃপক্ষের পক্ষ থেকে অনুমোদন পত্রটি হস্তান্তর করেন এ জে এম সালাউদ্দিন নাগরী ( উপপরিচালক)  এবং সৈকত সরকার ( উপপ্রধান ডিসপ্লে কর্মকর্তা)।
এ বিষয়ে ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম বলেন, বশেমুরবিপ্রবি বিজ্ঞান ক্লাব এর সাধারন সম্পাদক আরিফুল ইসলাম বলেন,আলহামদুলিল্লাহ।  বশেমুরবিপ্রবি বিজ্ঞান ক্লাব পরিবারের  জন্য খুবই আনন্দের বিষয়। আমরা অনেকদিন ধরে অনুমোদন পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। আজকে অবশেষে সার্টিফিকেট হাতে পেলাম।
সভাপতি সাদমান বিন কাওসার বলেন, আমি ধন্যবান জানাচ্ছি বিগত কমিটির সভাপতি রাকিবুল ইসলাম এবং সাধারন সম্পাদক নাহিদুল ইসলাম কে  সঠিক সময়ে আবেদন করে সকল তথ্য নির্ভুলভাবে  পাঠানোর জন্য।বিশ্ববিদ্যালয় এবং গোপালগঞ্জ জেলায় বিজ্ঞানের প্রসার ও প্রচারের জন্য কাজ করতে এখন আরো  অনেক সহজ হবে। সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

সরকারি অনুমোদন পেলো বশেমুরবিপ্রবি বিজ্ঞান ক্লাব 

আপডেট সময় : ১১:৩৫:২৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
দীর্ঘ প্রতীক্ষার পর বাংলাদেশ সরকারের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের অধীনে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘরের অনুমোদন পেলো গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযক্তি বিশ্ববিদ্যালয় বিজ্ঞান ক্লাব৷
বিজ্ঞান ক্লাবটি যাত্রা শুরু করে ২০১৯ সালে। দীর্ঘ পথ পাড়ি দিয়ে বর্তমানে বশেমুরবিপ্রবি ক্যাম্পাসের একটা নির্ভরযোগ্য বিজ্ঞান ভিত্তিক সংগঠনে পরিণত হয়েছে বিজ্ঞান ক্লাব।  বিশ্ববিদ্যালয় এলাকাসহ পুরো গোপালগঞ্জ জেলায় বিজ্ঞান প্রচার ও প্রসারে কাজ করে যাচ্ছে ক্লাবটি। একটি বিজ্ঞান ভিত্তিক ক্লাব সরকারি ভাবে অনুমোদনের জন্য যত শর্ত রয়েছে গতবছরে সেটি পূরণ করেছে সংগঠনটি।
সব শর্তপূরণ করার শর্তে আবেদন যাচাই বাছাই শেষে মৌখিক ভাবে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর কতৃপক্ষ আগেই জানায় ক্লাব কতৃপক্ষ কে এবং তারই সাথে জাদুঘর ভ্রমনের নিমন্ত্রণ জানায়৷ অফিশিয়ালি আজ ৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ বিজ্ঞান ক্লাব সভাপতি সাদমান কাওসার এবং সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম সহ সহসভাপতি সাদিয়া ইসলাম বাবলি, সুমাইয়া খাতুন ও সাংগঠনিক সম্পাদক সাকিবুল ইসলামের একটি টিম বশেমুরবিপ্রবি বিজ্ঞান ক্লাবের পক্ষ থেকে অনুমোদন পত্রটি গ্রহন করেন। জাদুঘর কতৃপক্ষের পক্ষ থেকে অনুমোদন পত্রটি হস্তান্তর করেন এ জে এম সালাউদ্দিন নাগরী ( উপপরিচালক)  এবং সৈকত সরকার ( উপপ্রধান ডিসপ্লে কর্মকর্তা)।
এ বিষয়ে ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক আরিফুল ইসলাম বলেন, বশেমুরবিপ্রবি বিজ্ঞান ক্লাব এর সাধারন সম্পাদক আরিফুল ইসলাম বলেন,আলহামদুলিল্লাহ।  বশেমুরবিপ্রবি বিজ্ঞান ক্লাব পরিবারের  জন্য খুবই আনন্দের বিষয়। আমরা অনেকদিন ধরে অনুমোদন পাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছিলাম। আজকে অবশেষে সার্টিফিকেট হাতে পেলাম।
সভাপতি সাদমান বিন কাওসার বলেন, আমি ধন্যবান জানাচ্ছি বিগত কমিটির সভাপতি রাকিবুল ইসলাম এবং সাধারন সম্পাদক নাহিদুল ইসলাম কে  সঠিক সময়ে আবেদন করে সকল তথ্য নির্ভুলভাবে  পাঠানোর জন্য।বিশ্ববিদ্যালয় এবং গোপালগঞ্জ জেলায় বিজ্ঞানের প্রসার ও প্রচারের জন্য কাজ করতে এখন আরো  অনেক সহজ হবে। সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।