০৮:৩২ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ১ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সিস্টেম এনালিস্ট সাময়িক বরখাস্ত

জাল সার্টিফিকেট প্রিন্ট ও বিক্রির অভিযোগে আটক হওয়া বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সিস্টেম এনালিস্ট প্রকৌশলী এ কে এম শামসুজ্জামানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

 

গতকাল সোমবার কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. আলী আকবর খানের সই করা অফিস আদেশ থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
এতে বলা হয়, রোববার মধ্যরাতে প্রকৌশলী এ কে এম শামসুজ্জামানকে গোয়েন্দা পুলিশ আটক করে। জাল সার্টিফিকেট প্রিন্ট ও বিক্রয়ের অভিযোগে তাকে আটক করা হয় বলে বেসরকারি টেলিভিশনে প্রচারিত খবর থেকে জানা গেছে। সরকারি চাকরি আইন মোতাবেক তাকে বোর্ডের চাকরি হতে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।

এ আদেশ ১ এপ্রিল থেকেই কার্যকর হবে। তিনি বরখাস্তকালীন সময়ে বিধি মোতাবেক খোরাকি ভাতা প্রাপ্য হবেন বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়।

 

এর আগে সোমবার বেলা ১১টায় ঢাকা মহানগর পুলিশের গণমাধ্যম বিভাগ থেকে পাঠানো খুদে বার্তায় জানানো হয়, বিপুল পরিমাণ অবৈধ সার্টিফিকেট ও মার্কশিটসহ বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের প্রধান কম্পিউটার বিশেষজ্ঞকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাজধানীর পীরের বাগে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের প্রধান কম্পিউটার বিশেষজ্ঞের বাসায় অবৈধ সার্টিফিকেট ও মার্কশিট তৈরির কারখানার সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর ডিবি পুলিশ সেখানে অভিযান পরিচালনা করে।

 

এদিকে শিক্ষামন্ত্রীর দপ্তর থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, অবৈধ সনদ বিক্রির সঙ্গে আর কেউ জড়িত কি না তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে আরো অনেকে জড়িত আছে বলে আমাদের ধারণা। সেগুলো সব তদন্ত করে দেখা হচ্ছে এবং জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।

জনপ্রিয় সংবাদ

কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সিস্টেম এনালিস্ট সাময়িক বরখাস্ত

আপডেট সময় : ০৫:৩৩:২০ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪

জাল সার্টিফিকেট প্রিন্ট ও বিক্রির অভিযোগে আটক হওয়া বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের সিস্টেম এনালিস্ট প্রকৌশলী এ কে এম শামসুজ্জামানকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে।

 

গতকাল সোমবার কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান মো. আলী আকবর খানের সই করা অফিস আদেশ থেকে এ তথ্য জানা গেছে।
এতে বলা হয়, রোববার মধ্যরাতে প্রকৌশলী এ কে এম শামসুজ্জামানকে গোয়েন্দা পুলিশ আটক করে। জাল সার্টিফিকেট প্রিন্ট ও বিক্রয়ের অভিযোগে তাকে আটক করা হয় বলে বেসরকারি টেলিভিশনে প্রচারিত খবর থেকে জানা গেছে। সরকারি চাকরি আইন মোতাবেক তাকে বোর্ডের চাকরি হতে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।

এ আদেশ ১ এপ্রিল থেকেই কার্যকর হবে। তিনি বরখাস্তকালীন সময়ে বিধি মোতাবেক খোরাকি ভাতা প্রাপ্য হবেন বলে আদেশে উল্লেখ করা হয়।

 

এর আগে সোমবার বেলা ১১টায় ঢাকা মহানগর পুলিশের গণমাধ্যম বিভাগ থেকে পাঠানো খুদে বার্তায় জানানো হয়, বিপুল পরিমাণ অবৈধ সার্টিফিকেট ও মার্কশিটসহ বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের প্রধান কম্পিউটার বিশেষজ্ঞকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। রাজধানীর পীরের বাগে কারিগরি শিক্ষা বোর্ডের প্রধান কম্পিউটার বিশেষজ্ঞের বাসায় অবৈধ সার্টিফিকেট ও মার্কশিট তৈরির কারখানার সন্ধান পাওয়া যায়। এরপর ডিবি পুলিশ সেখানে অভিযান পরিচালনা করে।

 

এদিকে শিক্ষামন্ত্রীর দপ্তর থেকে এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, অবৈধ সনদ বিক্রির সঙ্গে আর কেউ জড়িত কি না তা তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী বলেছেন, এই প্রক্রিয়ার সঙ্গে আরো অনেকে জড়িত আছে বলে আমাদের ধারণা। সেগুলো সব তদন্ত করে দেখা হচ্ছে এবং জড়িতদের শাস্তি নিশ্চিত করা হবে।