০৬:৪৫ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ২২ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় সাড়ে ৭ কোটি গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস

যুক্তরাষ্ট্রের এটিএন্ডটি-এর বর্তমান ও সাবেক সাত কোটি ৩০ লাখ গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য অনলাইনে ফাঁস হয়ে গেছে।
টেলিকম জায়ান্ট বলেছে, যেসব তথ্য ফাঁস হয়েছে তার মধ্যে আছে ঠিকানা, সামাজিক নিরাপত্তা নম্বর, পাসকোড। এরই মধ্যে তারা কাস্টমারদের পাসকোড পরিবর্তন করেছে। তবু গ্রাহকদের একাউন্টে একটিভিটি এবং ক্রেডিট রিপোর্টের দিকে নজর রাখার অনুরোধ করেছে। যেসব ডাটা ফাঁস হয়েছে তার বেশির ভাগই ২০১৯ বা তার আগের। এর সঙ্গে যুক্ত ৭৬ লাখ গ্রাহক। আরো আছে ছয় কোটি ৫৪ লাখ একাউন্ট হোল্ডার।

 

চলতি সপ্তাহে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে টেলিযোগাযোগ কোম্পানিটি জানায়, দুই সপ্তাহ আগে ডার্ক ওয়েবে নতুন ও পুরনো গ্রাহকদের তথ্য ফাঁস হয়েছে। এর মধ্যে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের সামাজিক সুরক্ষা নাম্বার রয়েছে। এসব তথ্য এটিঅ্যান্ডটি থেকেই চুরি হয়েছে নাকি অন্য কোথাও থেকে তা জানা যায়নি। তবে এখন পর্যন্ত এটিঅ্যান্ডটির সিস্টেমে কোনো অনধিকার প্রবেশের তথ্য পাওয়া যায়নি।
এটিঅ্যান্ডটির ওয়্যারলেস ফাইভ-জি নেটওয়ার্ক যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে প্রায় ২৯ কোটি মানুষকে সেবা দিয়ে থাকে। যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বৃহৎ মোবাইল ও ইন্টারনেট সেবাদানকারী কোম্পানিগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম।

 

জনপ্রিয় সংবাদ

যুক্তরাষ্ট্রে প্রায় সাড়ে ৭ কোটি গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস

আপডেট সময় : ০৭:১৩:২০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২ এপ্রিল ২০২৪

যুক্তরাষ্ট্রের এটিএন্ডটি-এর বর্তমান ও সাবেক সাত কোটি ৩০ লাখ গ্রাহকের ব্যক্তিগত তথ্য অনলাইনে ফাঁস হয়ে গেছে।
টেলিকম জায়ান্ট বলেছে, যেসব তথ্য ফাঁস হয়েছে তার মধ্যে আছে ঠিকানা, সামাজিক নিরাপত্তা নম্বর, পাসকোড। এরই মধ্যে তারা কাস্টমারদের পাসকোড পরিবর্তন করেছে। তবু গ্রাহকদের একাউন্টে একটিভিটি এবং ক্রেডিট রিপোর্টের দিকে নজর রাখার অনুরোধ করেছে। যেসব ডাটা ফাঁস হয়েছে তার বেশির ভাগই ২০১৯ বা তার আগের। এর সঙ্গে যুক্ত ৭৬ লাখ গ্রাহক। আরো আছে ছয় কোটি ৫৪ লাখ একাউন্ট হোল্ডার।

 

চলতি সপ্তাহে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে টেলিযোগাযোগ কোম্পানিটি জানায়, দুই সপ্তাহ আগে ডার্ক ওয়েবে নতুন ও পুরনো গ্রাহকদের তথ্য ফাঁস হয়েছে। এর মধ্যে অ্যাকাউন্ট হোল্ডারদের সামাজিক সুরক্ষা নাম্বার রয়েছে। এসব তথ্য এটিঅ্যান্ডটি থেকেই চুরি হয়েছে নাকি অন্য কোথাও থেকে তা জানা যায়নি। তবে এখন পর্যন্ত এটিঅ্যান্ডটির সিস্টেমে কোনো অনধিকার প্রবেশের তথ্য পাওয়া যায়নি।
এটিঅ্যান্ডটির ওয়্যারলেস ফাইভ-জি নেটওয়ার্ক যুক্তরাষ্ট্রজুড়ে প্রায় ২৯ কোটি মানুষকে সেবা দিয়ে থাকে। যুক্তরাষ্ট্রে সবচেয়ে বৃহৎ মোবাইল ও ইন্টারনেট সেবাদানকারী কোম্পানিগুলোর মধ্যে এটি অন্যতম।