০৭:০৯ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৩০ মে ২০২৪, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

চবি সাইন্টিফিক সোসাইটির নবীন বরণ ও প্রবীণ বিদায় অনুষ্ঠিত 

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্টিফিক সোসাইটি (সিইউএসএস) কর্তৃক “নবীন বরন ও প্রবীণ বিদায় ২০২৪” অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার (১৪ মে) দুপুর ১টার দিকে সমাজবিজ্ঞান অনুষদ অডিটোরিয়ামে এ আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো.আবু তাহের ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (একাডেমি) অধ্যাপক বেণু কুমার দে।
অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে সায়েন্টিফিক সোসাইটির উপদেষ্টা লায়লা খালেদা বলেন, সায়েন্টিফিক সোসাইটি জ্ঞান চর্চায় কাজ করে যাচ্ছে। আজকে যারা নবীন তাদেরকে সিইউএসএসে স্বাগতম যারা বিদায় নিচ্ছে তাদেরকেও স্বাগতম। এই সাইন্টিফিক সোসাইটি শিক্ষার্থীদের সুপ্তমেধা বিকাশে কাজ করে আমি এই সোসাইটির উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি।
সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সিরাজ উদ দৌল্লাহ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা মিশন এবং ভিশনের জন্য এরকম ক্লাবগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সহায়ক। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যকলাপ সম্পর্কে বিশ্লেষণ করবে শিক্ষার্থীরা। আর এই সাইন্টিফিক সোসাইটির কার্যকলাপ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার কাঠামোর সাথে সম্পৃক্ততা রয়েছে।
বিশ্ববিদ্যায়ের উপ- উপাচার্য (একাডেমিক) বেনু কুমার দে বলেন, সায়েন্টিফিক সোসাইটি সদস্যরা সৃজনশীল নাগরিক তৈরি হবে। আমরা চাকরীর পিছনে দৌড়াবোনা চাকরী সৃষ্টি করবো। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ জ্ঞান চর্চা, সৃষ্টি এবং বিতরণ করা। সায়েন্টিফিক সোসাইটির সদস্যরা জ্ঞান সৃষ্টিতে কাজ করবে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড.মো: আবু তাহের বলেন,  বিজ্ঞান শিক্ষা সারা পৃথিবীর জন্য এক ধরনের চ্যালেঞ্জ। স্মার্ট শিক্ষায় উন্নত হতে হবে আমাদের শিক্ষার্থীদের। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের মোকাবেলা করতে আমাদের সকল বিষয়ে স্কিল অর্জন করতে হবে অন্যথায় মোকাবেলায় টিকে থাকা সম্ভব নয়। কোন আইডিয়া ছোট হলেও সেটা যত্ন নিতে হবে এর লক্ষ্যে পৌঁছাতে। অনেক মানুষের কষ্ট এবং আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমাদের এই দেশ। দেশের সকল বিষয়ে আমাদের দায়িত্ব রয়েছে সেগুলো যেন আমরা পালন করতে পারি।

চবি সাইন্টিফিক সোসাইটির নবীন বরণ ও প্রবীণ বিদায় অনুষ্ঠিত 

আপডেট সময় : ০৫:২১:০৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১৪ মে ২০২৪
চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্টিফিক সোসাইটি (সিইউএসএস) কর্তৃক “নবীন বরন ও প্রবীণ বিদায় ২০২৪” অনুষ্ঠিত হয়েছে।
মঙ্গলবার (১৪ মে) দুপুর ১টার দিকে সমাজবিজ্ঞান অনুষদ অডিটোরিয়ামে এ আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মো.আবু তাহের ও বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য (একাডেমি) অধ্যাপক বেণু কুমার দে।
অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে সায়েন্টিফিক সোসাইটির উপদেষ্টা লায়লা খালেদা বলেন, সায়েন্টিফিক সোসাইটি জ্ঞান চর্চায় কাজ করে যাচ্ছে। আজকে যারা নবীন তাদেরকে সিইউএসএসে স্বাগতম যারা বিদায় নিচ্ছে তাদেরকেও স্বাগতম। এই সাইন্টিফিক সোসাইটি শিক্ষার্থীদের সুপ্তমেধা বিকাশে কাজ করে আমি এই সোসাইটির উত্তরোত্তর সাফল্য কামনা করি।
সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন অধ্যাপক সিরাজ উদ দৌল্লাহ বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষা মিশন এবং ভিশনের জন্য এরকম ক্লাবগুলো বিশ্ববিদ্যালয়ের জন্য সহায়ক। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের কার্যকলাপ সম্পর্কে বিশ্লেষণ করবে শিক্ষার্থীরা। আর এই সাইন্টিফিক সোসাইটির কার্যকলাপ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার কাঠামোর সাথে সম্পৃক্ততা রয়েছে।
বিশ্ববিদ্যায়ের উপ- উপাচার্য (একাডেমিক) বেনু কুমার দে বলেন, সায়েন্টিফিক সোসাইটি সদস্যরা সৃজনশীল নাগরিক তৈরি হবে। আমরা চাকরীর পিছনে দৌড়াবোনা চাকরী সৃষ্টি করবো। বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ জ্ঞান চর্চা, সৃষ্টি এবং বিতরণ করা। সায়েন্টিফিক সোসাইটির সদস্যরা জ্ঞান সৃষ্টিতে কাজ করবে।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে উপাচার্য অধ্যাপক ড.মো: আবু তাহের বলেন,  বিজ্ঞান শিক্ষা সারা পৃথিবীর জন্য এক ধরনের চ্যালেঞ্জ। স্মার্ট শিক্ষায় উন্নত হতে হবে আমাদের শিক্ষার্থীদের। চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের মোকাবেলা করতে আমাদের সকল বিষয়ে স্কিল অর্জন করতে হবে অন্যথায় মোকাবেলায় টিকে থাকা সম্ভব নয়। কোন আইডিয়া ছোট হলেও সেটা যত্ন নিতে হবে এর লক্ষ্যে পৌঁছাতে। অনেক মানুষের কষ্ট এবং আত্মত্যাগের বিনিময়ে আমাদের এই দেশ। দেশের সকল বিষয়ে আমাদের দায়িত্ব রয়েছে সেগুলো যেন আমরা পালন করতে পারি।